• সম্পূর্ণ স্কলারশিপ

কমনওয়েলথ মাস্টার্স বৃত্তি স্বল্প ও মধ্যম আয়ের কমনওয়েলথ দেশগুলোর প্রার্থীদের যুক্তরাজ্যের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পূর্ণকালীন মাস্টার্স প্রোগ্রামে অধ্যয়নের সুযোগ প্রদান করে। যুক্তরাজ্যের কমনওয়েলথ স্কলারশিপ কমিশন (সিএসসি) আন্তর্জাতিক উন্নয়নের লক্ষে যুক্তরাজ্য সরকারকে মূল বৃত্তি স্কিম সরবরাহ করে। সিএসসি হল একটি নির্বাহী এবং বিভাগহীন পাবলিক সংস্থা যা ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট দ্বারা অর্থায়িত।

সিএসসি কমনওয়েলথ স্কলারশিপ অ্যান্ড ফেলোশিপ প্ল্যান (সিএসএফপি) এর কাঠামোর মধ্যে কাজ করে এবং কমনওয়েলথের প্রতি যুক্তরাজ্যের স্থায়ী প্রতিশ্রুতির একটি স্পষ্ট প্রদর্শন। কমনওয়েলথ দেশগুলোতে ছড়িয়ে থাকা ভবিষ্যতের উদ্ভাবক এবং নেতাদের সমর্থনের মাধ্যমে এবং যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অসাধারণ প্রতিভাবান ব্যক্তিদের আকৃষ্ট করার মাধ্যমে, তারা যুক্তরাজ্যের জাতীয় স্বার্থের বিকাশে কাজ করছে।

এই বৃত্তিটি মেধাবী এবং অনুপ্রাণিত ব্যক্তিদের টেকসই উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় জ্ঞান এবং দক্ষতা অর্জনে সহায়তা করে এবং এই বৃত্তিটি তাদের জন্য যারা যুক্তরাজ্যে পড়ার জন্য আর্থিকভাবে সক্ষম নয়। এই বৃত্তিটি ছয় থিমের অধীনে প্রদান করা হয়ঃ

  1. উন্নয়নের জন্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  2. স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও সক্ষমতা জোরদার করা
  3. বৈশ্বিক সমৃদ্ধির প্রচার করা
  4. বিশ্বব্যাপী শান্তি, সুরক্ষা এবং প্রশাসনকে শক্তিশালী করা
  5. দৃঢ়তা এবং সংকট প্রতিক্রিয়া জোরদার করা
  6. অ্যাক্সেস, ইনক্লুশন এবং অপরচুনিটি

নির্বাচন প্রক্রিয়াঃ 

প্রতি বছর, সিএসসি একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক মনোনয়ন জমা দেওয়ার জন্য নির্বাচিত মনোনীত সংস্থাকে আমন্ত্রণ জানায়। সিএসসিতে মনোনয়ন জমা দেওয়ার জন্য নির্বাচিত মনোনয়ন সংস্থার শেষ সময়  হল ১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯।

সিএসসি প্রাপ্ত বৃত্তির চেয়ে প্রায় তিনগুণ বেশি মনোনয়নের আমন্ত্রণ জানিয়েছে – সুতরাং মনোনীত প্রার্থীদের বৃত্তি প্রদানের নিশ্চয়তা নেই। কোনও পৃথক দেশের জন্য বৃত্তির জন্য কোটা নেই। জাতীয় মনোনীত সংস্থার মাধ্যমে মনোনীত প্রার্থীরা অন্যান্য প্রার্থীদের সাথে প্রতিযোগিতায় রয়েছেন এবং সবাইকে একই স্ট্যান্ডার্ড মেনে বাছাই করা হবে।

নিম্নলিখিত নির্বাচনের মানদণ্ড অনুযায়ী আবেদন বিবেচনা করা হবে:

  • প্রার্থীর একাডেমিক যোগ্যতা
  • অধ্যয়নের পরিকল্পনার মান
  • প্রার্থীর নিজ দেশে উন্নয়নের সম্ভাব্য প্রভাব

 

স্থান:

যুক্তরাজ্য

সুযোগ সুবিধাসমূহ

  • প্রার্থীর নিজ দেশ থেকে যুক্তরাজ্যে যাওয়ার বিমান ভাড়া এবং অধ্যয়ন শেষে যুক্তরাজ্য থেকে নিজ দেশে ফিরে আসার বিমান ভাড়া প্রদান করবে (সিএসসি প্রার্থী ব্যতীত অন্য কারো খরচ বহন করবে না এবং বৃত্তি নিশ্চিত হওয়ার আগে যুক্তরাজ্যে ভ্রমণের কোন ব্যয় বহন করবে না)।
  • অনুমোদিত টিউশন ফি
  • প্রতি মাসে ১১১০ ইউরোর স্টাইপেন্ড বা জীবিকা ভাতা প্রদান করা হবে অথবা যারা লন্ডন মেট্রোপলিটন এলাকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়ন করবে তাদেরকে প্রতি মাসে ১৩৬২ ইউরোর উপবৃত্তি প্রদান করা হবে।
  • উষ্ণ পোশাক ভাতা, যদি প্রয়োজন হয়।
  • থিসিস বা গবেষণামূলক প্রস্তুতির ব্যয়ের জন্য “থিসিস গ্র্যান্ট” প্রদান করা হবে।
  • যুক্তরাজ্যের মধ্যে বা বিদেশে অধ্যয়ন সম্পর্কিত ভ্রমণের ব্যয়ের জন্য “স্টাডি ট্র্যাভেল গ্র্যান্ট” প্রদান করা হবে।
  • বিধবা, তালাকপ্রাপ্ত বা সিঙ্গেল প্যারেন্টদের তাদের প্রথম সন্তানের জন্য প্রতি মাসে ৪৭৬ ইউরোর শিশু ভাতা এবং দ্বিতীয় ও তৃতীয় সন্তানের জন্য প্রতি মাসে ১১৭ ইউরোর শিশু ভাতা প্রদান করা হবে। এক্ষেত্রে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় সন্তানের বয়স ১৬ বছরের কম হতে হবে এবং অধ্যয়নকালে সন্তানদের প্রার্থীর সাথে যুক্তরাজ্যেই বসবাস করতে হবে।

আবেদনের যোগ্যতা

  • কমনওয়েলথ দেশের নাগরিক বা শরণার্থী মর্যাদা প্রাপ্ত ব্যক্তি বা ব্রিটিশ সুরক্ষিত ব্যক্তি- এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।
  • কমনওয়েলথ দেশের একজন স্থায়ী বাসিন্দা আবেদন করতে পারবে।
  • ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর / অক্টোবরে যুক্তরাজ্যের একাডেমিক বর্ষ শুরু হওয়ার সময় যুক্তরাজ্যে অধ্যয়ন করতে সক্ষম।
  • যুক্তরাজ্যে অধ্যয়ন করতে আর্থিকভাবে সক্ষম নয়।
  • সকল সাপোর্টিইং ডকুমেন্ট নির্দিষ্ট ফরম্যাটে জমা দিতে সক্ষম।

আবেদনের যোগ্যতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। 

যেসকল স্থানের প্রার্থীদের জন্য প্রযোজ্য: অ্যান্টিগুয়া এবং বার্বুডা, বাংলাদেশ, বেলিজ, বোতসোয়ানা, ক্যামেরুন, ডোমিনিকা, এ্যাসওয়াতিনি, ফিজি, গাম্বিয়া, ঘানা, গ্রেনাডা, গায়ানা, ভারত, জামাইকা, কেনিয়া, কিরিবাতি, লেসোথো, মালাভি, মালয়েশিয়া, মরিশাস, মন্টেসেরেট, মোজাম্বিক, নামিবিয়া, নুরু , নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, পাপুয়া নিউ গিনি, রুয়ান্ডা, সামোয়া, সিয়েরা লিওন, সলোমন দ্বীপপুঞ্জ, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, সেন্ট হেলেনা, সেন্ট লুসিয়া, সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইনস, তানজানিয়া, টঙ্গা, টুভালু, উগান্ডা, ভানুয়াতু, জাম্বিয়া

আবেদন পদ্ধতি

  • অনলাইন লিংকের মাধ্যমে আবেদন করুন।
  • প্রার্থীকে অবশ্যই আবেদনের জন্য নিম্নলিখিত মনোনীত সংস্থার একটিতে আবেদন করতে হবে – সিএসসি এই বৃত্তির জন্য সরাসরি আবেদন গ্রহণ করে নাঃ
  1. জাতীয় মনোনীত এজেন্সি – এটি আবেদনের প্রধান মাধ্যম
  2. নির্বাচিত বেসরকারী সংস্থা এবং দাতব্য সংস্থা
  • আবেদন প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে http://www.ugc.gov.bd ভিজিট করুন।

আবেদনের শেষ তারিখ: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

আবেদনের সময় শেষঅফিসিয়াল লিংক
Disclaimer: Youth Opportunities spreads opportunities for your convenience and ease based on available information, and thus, does not take any responsibility of unintended alternative or inaccurate information. As this is not the official page, we recommend you to visit the official website of opportunity provider for complete information. For organizations, this opportunity is shared with sole purpose of promoting “Access to Information” for all and should not be associated with any other purposes.

Forgot your details?