• সেপ্টেম্বর ১৭ - ২৪, ২০১৯
  • ঢাকা

ফাউন্ডার ইনস্টিটিউট, বিশ্বের প্রিমিয়ার প্রি-সিড স্টার্টআপ এক্সিলারেটর এখন বাংলাদেশে তাদের ২০১৯ সালের প্রোগ্রামের জন্য আবেদন গ্রহণ করছে।

ফাউন্ডার ইনস্টিটিউট সিলিকন ভ্যালিতে  প্রতিষ্ঠিত হয় এবং বিশ্বের ১৮০টিরও বেশি শহরে কাজ করছে। ফাউন্ডার ইনস্টিটিউট অত্যন্ত সম্ভাবনাময় উদ্যোক্তা এবং তাদের দলকে বিভিন্ন জটিল বিষয়ে সাহায্য প্রদান করে থাকে এবং একটি স্থায়ী সংস্থা নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় কাঠামোগত প্রক্রিয়া সরবরাহ করে থাকে। ২০০৯ সাল থেকে এই প্রোগ্রামটি ৩৫০০ এরও বেশি গ্র্যাজুয়েটদের ৮০০ মিলিয়ন ডলারের তহবিল সংগ্রহে সহায়তা করেছে। এছাড়াও প্রোগ্রামটি বিভিন্ন প্রকারের সহায়তা প্রদান করেছে যেমন প্রকল্প বাস্তবায়ন, দল নিয়োগ করা, পণ্য প্রস্তুত করা, কর্মচারী থেকে উদ্যোক্তা হওয়ায় সাহায্য করা ইত্যাদি।

আপনি যদি ঢাকার শীর্ষস্থানীয় উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে স্টার্টআপ সম্পর্কে কাঠামোগত প্রক্রিয়া জানতে চান বা তাদের ফিডব্যাক চান তাহলে আজই আবেদন করুন এই প্রোগ্রামে। ২০১৫ সালে ঢাকায় চালু হওয়ার পর থেকে প্রোগ্রামটি প্রায় ৮টি প্রযুক্তিগত প্রতিষ্ঠান নির্মাণে সহায়তা করেছে যেমনঃ স্টাইলাইন কালেকশন লিমিটেড, হ্যান্ডিমামা.কম ইত্যাদি।

এছাড়াও ঢাকার শীর্ষ উদ্যোক্তা, সিইও এবং বিনিয়োগকারীরা এই প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করবে এবং  প্রশিক্ষণ, মতামত ও মূল্যায়ন প্রদান করবে। ঢাকার ফাউন্ডার ইনস্টিটিউটের মেন্টরদের তালিকায় রয়েছে:

  • অ্যাডিও রেসিঃ প্রতিষ্ঠাতা /সিইও,ফাউন্ডার ইনস্টিটিউট
  • জুনায়েদ আহমেদ পলকঃ রাজ্য প্রতিমন্ত্রী, আইসিটি বিভাগ
  • সাজিদ রহমানঃ সিইও, টেলিনর হেলথ
  • অনিতা গাজী রহমানঃ প্রতিষ্ঠাতা ও সহযোগী, দ্য লিগ্যাল সার্কেল
  • ওয়াসিম আলিমঃ প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও, চালডাল
  • সিফাত সরওয়ারঃ সহ-প্রতিষ্ঠাতা, শপআপ
  • আল ফারুক শুভঃসিইও ও মাস্টারমাইন্ড, যান্ত্রিক লিমিটেড
  • শেখ সৌরভঃ এমডি, স্পেসসফট লিমিটেড
  • শাহ পরানঃপ্রতিষ্ঠাতা ও সিইও, হ্যান্ডিমামা
  • রেয়াসাত চৌধুরীঃ সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও, শাটল
  • খোবাইব চৌধুরীঃ প্রতিষ্ঠাতা, স্টাইলাইন কালেকশন
  • আর্মিন জামান খানঃ সিইও, রমণী.এক্সওয়াইজেড

 

স্থান:

বাংলাদেশ

সুযোগ সুবিধাসমূহ

১। এসেস্মেন্ট পরীক্ষার মাধ্যমে উদ্যোক্তা হওয়ার সম্ভাবনা খুঁজে বের করা হয়ঃ ফাউন্ডার ইনস্টিটিউট বিভিন্ন শীর্ষস্থানীয়  সামাজিক বিজ্ঞানীদের সাথে কাজ করে একটি বস্তুনিষ্ঠ বিষয়কে বিকশিত করেছে যার নাম হল “Predictive Admissions Assessment” যা একজন উদ্যোক্তার সফল হওয়ার সম্ভাবনার পূর্বাভাস দিয়ে থাকে। এখন পর্যন্ত ৫০,০০০ মানুষ এই প্রোগ্রামে আবেদন করেছে এবং এই প্রোগ্রামটি ৬টি মহাদেশে প্রায় ৩৫০০ প্রযুক্তিগত উদ্যোক্তা তৈরি করেছে। বিভিন্ন পরীক্ষার পর দেখা গেছে যে এই টেস্টটি ৮৫% সঠিকভাবে উদ্যোক্তাদের সফল হওয়ার সম্ভাবনাকে অনুমান করতে পারে। এই পরীক্ষাটি নিউইয়র্ক টাইমস, সিএনএন এবং ফোর্বসেও প্রকাশিত হয়েছে।

২। কোর প্রোগ্রামঃ বাছাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নির্বাচিত ফাউন্ডারদের ৩.৫ মাসব্যাপী ১৪টি সেশনে অংশগ্রহণ করতে হবে যা তাদের ব্যবসায়িক উদ্যোগকে বাস্তবায়িত করতে সাহায়তা করবে। বিস্তারিত জানতে এই লিঙ্কটি ভিজিট করুনঃ  https://fi.co/program

৩।পোস্ট গ্র্যাজুয়েট সাপোর্টঃ ৩.৫ মাসের এই প্রোগ্রামটি শেষ হওয়ার পরও ফাউন্ডারদের বিভিন্নভাবে  সহযোগিতা করা হয়ে থাকে। যেমনঃ

  • সিলিকন ভ্যালি থেকে ডেডিকেটেড সাপোর্ট কন্টাক্ট
  • ব্যক্তিগত গ্র্যাড মেইলিং তালিকা
  • ৭৫০০+ মেন্টোরদের সাথে যোগাযোগের সুযোগ
  • ২মিলিয়ন ডলার+ইন পার্টনার ডিস্কাউন্ট
  • ফাউন্ডার ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন অধিবেশন এবং ইভেন্টে অংশগ্রহণের সুযোগ
  • ফাউন্ডার ইনস্টিটিউটের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিভিন্ন খবর এবং কন্টেন্ট বিতরণের সুযোগ

সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এই লিঙ্ক ভিজিট করুনঃ  https://fi.co/scale

আবেদনের যোগ্যতা

এলিজিবিলিটি ক্রাইটেরিয়া সম্পর্কে জানতে অফিসিয়াল লিঙ্ক ভিজিট করুন।

যেসকল স্থানের প্রার্থীদের জন্য প্রযোজ্য: বাংলাদেশ

আবেদন পদ্ধতি

  • প্রথমে  FI.co/join ভিজিট করুন এবং আবেদনের জন্য একটি একাউন্ট খুলুন।
  • আবেদনটি একটি ছোট লিখিত অংশ দিয়ে শুরু হয়, যেখানে আবেদনকারীর পেশাগত  ব্যাকগ্রাউন্ড এবং আগ্রহের ক্ষেত্রগুলো সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়। আবেদনকারী এই অংশে তার ব্যবসায়িক ধারণা নিয়েও আলোচনা করতে পারে কিন্তু তারা এই অংশে শুধুমাত্র ব্যক্তিগত মূল্যায়নে বেশি আগ্রহী।
  • ২ নম্বর ধাপ পূরণ করার পরে আবেদনকারীকে “Predictive Admissions Assessment” এর অংশটি পূরণ করতে হবে। এই অংশটি শেষ করতে সময় লাগবে আনুমানিক ৪৫-৯০ মিনিট।এই মূল্যায়ন পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য কোন পূর্ব প্রস্তুতির উপায় নেই এবং এই অংশের কোন ব্যক্তিগত তথ্য কোথাও প্রকাশিত হবে না।
  • এই পরীক্ষাটি মূলত সিলিকন ভ্যালি থেকেই পরিচালিত হয় এবং আবেদনের ৭২ ঘন্টার মধ্যেই ই-মেইলের মাধ্যমে ফলাফল জানিয়ে দেওয়া হয়।
  • এই প্রোগ্রামে নির্বাচিত হলে প্রার্থীকে তাদের সাইটে নথিভুক্ত হওয়ার সুযোগ দেওয়া হয় এবং  অবিলম্বে সমস্ত কোর্স উপকরণে অ্যাক্সেস দেওয়া হয়। এই প্রোগ্রামে নথিভুক্ত হওয়ার জন্য একজন নির্বাচিত প্রার্থীকে নিম্নোক্ত কাজগুলো সম্পন্ন করতে হবেঃ
  1. সাইন ইন করে ফাউন্ডার এগ্রিমেন্ট আপলোড করতে হবে।
  2. তারপর কোর্স ফি প্রদান করতে হবে।
  • প্রাথমিক ভর্তির শেষ সময়ঃ জুলাই ২১, ২০১৯ (ভর্তি ফি- ২৯৯ মার্কিন ডলার)
  • চূড়ান্ত ভর্তির শেষ সময়ঃ আগস্ট ১৮,২০১৯ (ভর্তি ফি- ৩৯৯ মার্কিন ডলার) 

আবেদনের শেষ তারিখ: অগাস্ট ১৮, ২০১৯

আবেদনের সময় শেষঅফিসিয়াল লিংক

বিস্তারিত জানতে

কল করুন এই নম্বরেঃ +8801703994071 ই-মেইল করুন এই ঠিকানায়ঃ [email protected]
Disclaimer: Youth Opportunities spreads opportunities for your convenience and ease based on available information, and thus, does not take any responsibility of unintended alternative or inaccurate information. As this is not the official page, we recommend you to visit the official website of opportunity provider for complete information. For organizations, this opportunity is shared with sole purpose of promoting “Access to Information” for all and should not be associated with any other purposes.
[mashshare]

Forgot your details?